Breaking News
সাওয়াল ও জওয়াব

হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা বিষয়ক
প্রশ্ন ও উত্তর
(হোমিও বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের পরামর্শ)

০১.হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার জন্য বাংলা ভাষায় রচিত সবচাইতে আধুনিক ও অনুসরণীয় কিছু বই কী কী?
উত্তর : হোমিওপ্যাথি বিশেষজ্ঞ হইতে চাইলে আমাদেরকে অবশ্যই যেই বিজ্ঞানী (স্যামুয়েল হ্যানিম্যান) হোমিওপ্যাথি আবিষ্কার করেছেন এবং যে-সব বিজ্ঞানী (হেরিং, বার্নেট, কেন্ট, বনিংহুসেন, লিপি, বোরিক, ফ্যারিংটন, ন্যাশ, ক্লার্ক, বোগার, কুপার প্রভৃতি) হোমিওপ্যাথির উন্নয়ন এবং প্রসারে জীবন উৎসর্গ করেছেন, তাদের লেখা বইগুলো পড়তে হবে (যত বেশী সম্ভব)। সম্ভব হলে বাংলা অনুবাদের পরিবর্তে ইংরেজিতে লেখা মূল বইগুলি পড়া উত্তম । পাশাপাশি দেশী-বিদেশী বিখ্যাত হোমিও ডাক্তারদের সারাজীবনের চিকিৎসার অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে লেখা বইগুলি পড়তে পারেন ।

০২. সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী রচিত কয়েকটি মেটিরিয়া মেডিকার নাম কী কী? বিশেষত নবীণ প্র্যাকটিশনারদের জন্য অনুকূল কিছু আধুনিক গ্রনে’র নাম জানতে চাই।
উত্তর: সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী রচিত মেটেরিয়া মেডিকাগুলির মধ্যে বোরিকের এবং ক্লার্কের মেটিরিয়া মেডিকা উল্লেখযোগ্য । তাছাড়া ইন্ডিয়ান ঔষধগুলির জন্য আলাদা কিছু মেটেরিয়া মেডিকা পাওয়া যায় ।

০৩. কেন্ট এর রেপার্টরী যে ভালো এবিষয়ে কারো সন্দেহ থাকার কথা নয়; তিনিও বেশ আগের । সবচাইতে আধুনিক তথ্য-উপাত্ত সম্বলিত ২/১টি রেপার্টরির নাম জানতে চাই।
উত্তর: সবচেয়ে আধুনিক এবং মেগা সাইজের রেপার্টরী হলো ফ্রেডেরিক স্রোয়েন্সের সিনথেসিস

০৪.হোমিও চিকিৎসার সবচাইতে জটিল কাজ মনে হয় ওষুধের শক্তি ও মাত্রা নির্ণয়; এমনকি ওষুধটি কোন পদ্ধতিতে এবং কোন সময়ে প্রয়োগ করলে কেমন ফল পাওয়া যাবে এ বিষয়ে জ্ঞান লাভ করাও বেশ কঠিন । এই সমস্ত বিষয়ে সহজ সরল ও অনুসরণযোগ্য সমাধান দেবে এরকম বইয়ের নাম জানতে চাই ।
উত্তর : ঔষধের শক্তিতে তেমন কিছু যায় আসে না । চিকিৎসায় আপনার সাফল্য নির্ভর করে ঔষধ নির্বাচনের নির্ভুলতার ওপর । কেন্ট সাধারণত উচ্চ শক্তি বেশী ব্যবহার করতেন আর বার্নেট সাধারণত নিম্ন শক্তি বেশী ব্যবহার করতেন । কাজেই এদের রোগীলিপি পড়ুন, এই ব্যাপারে অভিজ্ঞতা এসে যাবে ।

০৫. ওষুধ নির্বাচনের ক্ষেত্রে রোগির সব লক্ষণই কি মিলতে হবে? ১০০% মেলে কই? যা মেলে তাও আবার অন্য আর একটি ওষুধের সাথে মিলে যায় কখনো বা; কী করণীয় তাহলে?
উত্তর : না, ঔষধ নির্বাচনে প্রধান প্রধান লক্ষণ এবং অদ্ভূত লক্ষণের উপর অধিকাংশ সময় নির্ভর করতে হয় । সাধারণত ঔষধের প্রধান প্রধান কিছু লক্ষণ মিলে গেলে বাকিগুলো এমনিতেই মিলে যায় আর বাকীগুলি না মিললেও কোন অসুবিধা নাই । রোগী অতীতে কি কি ঔষধ খেয়েছেন/ ভ্যাকসিন নিয়েছেন, কি কি রোগে আক্রান্ত হয়েছেন এবং সেগুলো তার স্বাস্থ্যকে কিভাবে-কতটা ক্ষতিগ্রস্ত করেছে, ইত্যাদি নিয়ে সাধারণত অন্যান্যপন্থী ডাক্তাররা মাথা ঘামান না। পক্ষান্তরে একজন হোমিও ডাক্তার রোগীর মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত, তার অতীত থেকে বর্তমান পর্যন্ত, শরীরের বাহ্যিক রূপ থেকে মনের অন্দর মহল পর্যন্ত সকল বিষয় বিবেচনা-পযার্লোচনা করে হাজার হাজার হোমিও ঔষধ থেকে রোগীর জন্য সবচেয়ে মানানসই ঔষধ খুঁজে বের করে প্রয়োগ করেন। আর এই কারণেই হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় সবচেয়ে সহজে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ এবং নির্মূল করা যায়। হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসায় ডায়াবেটিস পুরোপুরি নিমূর্ল করতে প্রথমে সেই ব্যক্তি জন্মগতভাবে (Genetics) যে-সব দোষত্রুটি নিয়ে জন্মেছেন, সেগুলোর সংশোধন করতে হয়। তারপর বিষাক্ত এলোপ্যাথিক বা কবিরাজি ঔষধ খেয়ে শরীরের যে-সব ক্ষতি করেছেন, শরীর থেকে সে-সব বিষ দূর করতে হয়। তারপর টিকার (vaccine) মাধ্যমে শরীরে যতটা প্রলয়কারী ঘটিয়েছেন, তার ক্ষতিপূরণ করতে হয়। তারপর অপারেশন / একসিডেন্ট ইত্যাদির মাধ্যমে শরীরের যতটা ক্ষতি হয়েছে, সেগুলোর সংস্কার করতে হয়। আপনজনের মৃত্যু, প্রেমে ব্যথর্তা, বন্ধুর বিশ্বাসঘাতকতা, চাকুরি / ব্যবসায়ের পতন ইত্যাদি দুবির্পাকে সৃষ্ট মানসিক বেদনা থেকে শরীরের যেটুকু ক্ষতি হয়েছে, তাহা মেরামত করতে হয়।

০৬. এক ড্রাম গ্লোবিউলে কফোটা ওষুধ দেয় উচিৎ তা নিয়েও চিকিৎসকদের মধ্যে মতভেদ দেখি। মতভেদ দেখি একড্রাম পানীয় ওষুধ তৈরির বেলাতেও। এমনকি কতটুকু করে খওয়াতে হবে, কবার খাওয়াতে হবে, কখন খাওয়াতে হবে, কোন কোন খাবার থেকে রোগিকে বিরত রাখতে হবে, এসব নিয়েও একমত হতে পারেন না অনেকেই আমাদের মতো শিক্ষার্থীদের তাহলে কী করা উচিৎ ?
উত্তর : এসব ব্যাপারে অর্গাননে হ্যানিম্যান কি বলেছেন, তাই আমাদেরকে মেনে চলতে হবে। তবে হ্যানিম্যানের কথাকে কোন বিজ্ঞানী কিভাবে ব্যাখ্যা করেছেন, তাও বিবেচনার বিষয় । সে যাক, হ্যানিম্যানের থিওরীকে দুইজন বিপরীতমুখী বিজ্ঞানী দুইভাবে ব্যাখ্যা করেছেন এবং প্রয়োগ করেছেন । তারা হলেন কেন্ট এবং বার্নেট । আপনি এই দুইজনের বই বেশী বেশী পড়ুন, তাহলে বিষয়টি আপনার কাছে আর জটিল মনে হবে না । মোটকথা হোমিওপ্যাথির থিওরীগুলিতে অনেক কোমলতা আছে; এদেরকে পাথরের মতো শক্ত মনে করবেন না ।

০৭. এমন কোন সফটওয়ার কি আছে যাতে রোগের লক্ষণসমূহ দিলে রোগের নাম চলে আসে?
উত্তর ঃ হোমিওপ্যাথিক সফটওয়ারগুলিতে রোগের লক্ষণসমূহ দিলে সম্ভাব্য ঔষধগুলির নাম চলে আসে । কেননা হোমিওপ্যাথিতে লক্ষণের দাম আছে কিন্তু রোগের নামের কোন দাম নাই লক্ষণসমূহ দিলে রোগের নাম চলে আসবে এমন সুবিধা এলোপ্যাথিক সফটওয়ারে থাকতে পারে ।

০৮. কোন হোমিওপ্যাথিতে ঔষধকে নাক-কান-গলার শ্রেষ্ট ঔষধ বলা হয়?
উত্তর ঃ ক্যালি বাইক্রোমিকাম । নাক-কান-গলার অধিকাংশ রোগেই ইহার লক্ষণ পাওয়া যায়। দুইটি অদ্ভূত লক্ষণের উপর ভিত্তি করে ক্যালি বাইক্রোম প্রয়োগ করা হয়ে থাকে – খুবই আঠালো কফ-থুতু-নাকের শ্লেষ্মা (টানলে সুতার মতো লম্বা হয়) এবং অল্প একটু জায়গায় ব্যথা (একেবারে সূচের মাথার সমপরিমাণ)।

০৯. আমি হোমিওপ্যাথিক কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র । আমি একজন ভাল হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসক হইতে চাই । আপনার অভিজ্ঞতা থেকে আমাকে কিছু উপদেশ দিবেন ।
উত্তর ঃ আমার কলেজ লাইফের কেমিষ্ট্রির প্রফেসর প্রায়ই একটি কথা বলিতেন যে, সাইন্স ইজ ফর মেরিটরি স্টুডেন্ট এবং কেমিষ্ট্রি ইজ ফর মোর মেরিটরি স্টুডেন্ট , নট ফর গাধা স্টুডেন্ট। স্যারের কথাটিকে ঘুরিয়ে বলিলে বলা যায়, এলোপ্যাথি ইজ ফর মেরিটরি স্টুডেন্ট এবং হোমিওপ্যাথি ইজ ফর মোর মেরিটরি স্টুডেন্ট । একজন বিশেষজ্ঞ হোমিও ডাক্তার হওয়ার প্রথম শর্ত হইল তীক্ষ্ণ মেধাবী হইতে হইবে । তারপর অর্গানন এবং মেটিরিয়া মেডিকার পাশাপাশি কেমিষ্ট্রি, প্যাথলজি এবং সাইকোলজিতে ভালো দখল থাকিতে হইবে । মোটকথা মৃত্যু পর্যন্ত আপনাকে বইয়ের দিকেই তাকাইয়া থাকিতে হইবে । অন্যদিকে চক্ষু সরাইতে পারিবেন না ।

১০. ভাইজান কেমন আছেন? আমি একজন পল্লী হোমিও চিকিৎসক! চার মাস ধরে একাজের সাথে জড়িত । আমার খুবই ইচ্ছা আজীবন জড়িত থাকার । কিন্তু মাঝে মনে হয় আমি রোগীদের সাথে প্রতারনা করছি । কারন সঠিক ঔষধ নির্বাচন করেতে পারছিনা । এমন কোন বই কি আছে যা দেখে আমি সহজে চিকিৎসা করতে পারব ? থাকলে দয়া করে জানাবেন ।
উত্তর ঃ যে-কোন নতুন রোগে একোনাইট খাওয়ান এবং যে-কোন পুরাতন রোগে সালফার, নাক্স ভমিকা আর থুজা এই তিনটি ঔষধ ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খাওয়ান । এমন রোগ কমই আছে যা এই চারটি ঔষধে আরোগ্য হয় না। ৩০ শক্তির ঔষধ ব্যবহার করবেন আর ডায়েরিয়া ছাড়া প্রত্যেক রোগীকে ডায়েট কনট্রোল করতে বলবেন । এখনকার চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা বলেন, বেশী বেশী রোজা রাখার মাধ্যমে সর্দি থেকে ক্যানসার সব রোগই আরোগ্য করা সম্ভব ।

১১. হোমিওপ্যাথি, হোমিও ঔষধ অথবা হোমিও ডাক্তারদের পাবলিসিটিকে অনেকে খারাপ দৃষ্টিতে দেখেন । ইহা কি আসলেই কোন খারাপ কাজ?
উত্তর ঃ পাবলিসিটি বা প্রচারনাকে খারাপ দৃষ্টিতে দেখা একটি খুবই বিপদজনক ভুল । আসল কথা হইল প্রচার-প্রপাগান্ডার কোন বিকল্প নাই। দুনিয়াতে ভাল-মন্দ দুটোই টিকে আছে প্রচারনার উপর ভিত্তি করে । হ্যানিম্যান যদি হোমিওপ্যাথি আবিষ্কার করে চুপচাপ থাকতেন, তবে কিন্তু এমনি এমনি পৃথিবীর আনাচে-কানাচে হোমিওপ্যাথি ছড়িয়ে পড়ত না। হ্যানিম্যানের সময় রেডিও-টিভি-ইন্টারনেট ছিল না । বই এবং পত্রিকার মাধ্যমে হ্যানিম্যান প্রচারনা চালাতেন । তবে জরুরি প্রয়োজনের সময় হ্যানিম্যান লিফলেট ছাপিয়েও প্রচার করতেন । হ্যানিম্যানের সময় ইউরোপে একবার ভয়াবহ আকারে কলেরার প্রাদুর্ভাব হলে এলোপ্যাথিক ডাক্তার তাদের গতানুগতিক অভ্যাস মতো রোগীদের রক্তনালী কেটে অথবা রোগীদের শরীরে অনেকগুলো জোঁক লাগিয়ে দিয়ে রক্ত ফেলে দিয়ে কলেরার চিকিৎসা করতে ছিল এবং রোগীরা ফটাফট কবরে চলে যাইতেছিল । তখনকার দিনে এলোপ্যাথিক ডাক্তারদের বিশ্বাস ছিল যে, সকল রোগের মূল কারণ হইল শরীরে রক্তের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়া । এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ রোগীদের জীবন রক্ষা এবং এলোপ্যাথিক ডাক্তারদের ভুল ধারনা দূর করার জন্য হ্যানিম্যান সারা ইউরোপে কলেরা রোগের চিকিৎসা বিষয়ক লিফলেট বিতরন করে জনসচেতনতা সৃষ্টি করেন ।

১২. একজন হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের সাথে কি কি মেডিক্যাল ইকুইপমেন্ট থাকা দরকার?
উত্তর ঃ সাধারণত এলোপ্যাথিক ডাক্তারদের সাথে যে-সব যন্ত্রপাতি থাকে, এসব যন্ত্রপাতি একজন হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের সাথে থাকাতে দোষের কিছু নাই । যেমন- থার্মোমিটার, ষ্টেথোসকোপ, বিপি মেশিন ইত্যাদি ইত্যাদি । যদিও হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসাতে এসবের সাহায্য ছাড়াও চলা যায় । তবে কিছু যন্ত্রপাতি আছে যা না থাকলে চলা যায় না । যেমন- টর্চ লাইট, নাক-কান-গলার যন্ত্রপাতি ইত্যাদি। আপনাকে কোন রোগীর নাক-কান-গলার ভেতরটা দেখতে হলে অবশ্যই টর্চ লাইট লাগবে । তেমনিভাবে একজন রোগীর কানে তুলা বা পোকা ঢুকেছে, সেটি বাহির করতে নাক-কান-গলার কিছু হালকা যন্ত্রপাতি পাওয়া যায়, এগুলো সংগ্রহ করতে পারেন । তাছাড়া ইদানীং ডায়াবেটিস মাপার যে-সব যন্ত্র বেড়িয়েছে, সেগুলো কিনে ব্যবহার করতে পারেন । যাহারা খুবই ব্যস্ত ডাক্তার, তাহারা কর্মচারী দিয়ে এসব কাজ করতে পারেন। যাদের কাটা-ছেড়া সেলাই করার দক্ষতা আছে, তারা সেলাইয়ের আইটেমগুলোও রাখতে পারেন। যারা দূরবর্তী গ্রামাঞ্চলে ডাক্তারী করেন, তাহারা বিষ খেলে কীভাবে পেটে পাইপের মাধ্যমে পানি ঢুকিয়ে পাকস্থলী থেকে বিষ পরিষ্কার করতে হয় শিখে নিতে পারেন এবং এসব পাইপ, ফ্লানেল, রশি ইত্যাদি সংগ্রহে রাখতে পারেন । মোটকথা মিটফোর্ট এবং প্রেসক্লাবের যন্ত্রপাতির মার্কেটে ঘুরে ঘুরে দেখুন, আরো অনেক প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির সন্ধ্যান পেয়ে যাবেন ।

১৩. আমার ছেলেটার প্রচন্ড কাশি। বুকে সাঁই সাঁই শব্দ ও কাশতে কাশতে টানের মতো হয়ে যায় দেখে sambucus ২০০ দিয়েছিলাম তিন মাত্রা। দুপুরের দিকে কাশি কিছুটা কমে গিয়ে বিকেল থেকে আবার বেড়েছে। মাঝে মাঝে বলে কথা বলতে কষ্ট হয়। গলায় আটকে আসেৃ কি দেবো বুঝতে পারছি না।
উত্তর ঃ কাশি যদি সত্যিই মারাত্মক হয়, তবে ব্রায়োনিয়া ছাড়া অন্য কোন ঔষধের কথা চিন্তা করবেন না । ব্রায়োনিয়া ব্যর্থ হলেই কেবল তখন অন্য কোন ঔষধের কথা ভেবে দেখতে পারেন । হ্যাঁ, ব্রায়োনিয়ার লক্ষণ না থাকলেও প্রথমে দুয়েক মাত্রা ব্রায়োনিয়া খাওয়ান । কেননা যেই ঔষধ যেই অঙ্গের উপর বেশী কাজ করে, সেই অঙ্গের ব্যাধিতে সেই ঔষধ প্রয়োগ করাও সম্পূর্ণ হোমিওপ্যাথিক বা সদৃশ বিধান সম্মত । আর ব্রায়োনিয়া যে-সকল অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের উপর বেশী কাজ করে তাদের মধ্যে ফুসফুস অন্যতম । ব্রায়োনিয়ায় কোন উপকার না হইলে তখন রোগীর মধ্যে অন্য কোন ঔষধের লক্ষণ আছে খুঁজে বের করুন এবং সেটি খাওয়ান ।

১৪. একজন রোগীর ওভারিতে চকোলেট সিষ্টের জন্য ল্যাপারোস্কোপি অপারেশান করেছে । পাঁচ বছর পরে সেখানে আবারো সিষ্ট দেখা দিয়াছে । আমার প্রশ্ন হলো সিষ্টের সাইজ কত বড় হলে হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসার সীমার বাইরে চলে যায় এবং অপারেশান করা ছাড়া উপায় থাকে না ?
উত্তর ঃ চকোলেট সিষ্ট হউক আর বিস্কিট সিস্ট হউক, নাম নিয়ে চিন্তা করার দরকার নাই । লক্ষণ অনুযায়ী ঔষধ খাওয়াতে থাকুন, নিশ্চিত সেরে যাবে । আর আকারের কথা বলছেন ? সিস্ট বা টিউমারের সাইজ যদি বিশ ত্রিশ কেজিও হয়, তাও অপারেশান লাগবে না । হোমিওপ্যাথিক ঔষধেই নিরাময় হবে। হ্যাঁ, তবে যদি মনে করেন অত্যধিক বড় সিস্ট বা টিউমারের কারণে রোগীর শ্বাসনালী, খাদ্যনালী বা রক্তনালীর উপর ভীষণ চাপ পড়েছে এবং তাতে রোগীর হঠাৎ মৃত্যুর সম্ভাবনা আছে, সেক্ষেত্রে রোগীকে হাসপাতালে পাঠাতে পারেন ।

১৫. আসসালামু আলাইকুম। আমার বাম পায়ে হাটুর নিচে একটি ছোট টিউমার আছে। মেদপূর্ণ, চাপ দিলে বা লাগলে ব্যাথা অনুভব হয়। এছাড়া মাঝে মাঝে ব্যাথা হয়। প্রায় ১০-১২ বছর হবে। একই আকার, ছোট বা বড় কিছুই হয়নি। আমি প্রথমে ক্যালকেরিয়া ফস খেয়েছিলাম, আবার ক্যালকেরিয়া কার্ব উচ্চ শক্তি খেয়েছিলাম কোন কাজ হয়নি। এমতাবস্থায় আপনার পরামর্শ কামনা করছি।
উত্তর ঃ টিউমার এবং ক্যানসার জটিল রোগের অন্তর্ভূক্ত । কাজেই হোমিওপ্যাথিক এক্সপার্টদের ছাড়া অন্যদের এসব রোগ নিরাময়ে চেষ্টা করা বৃথা । Urtica urens Q ঔষধটি ১০ ফোটা করে রোজ দুইবেলা হিসাবে তিন মাস খেয়ে দেখতে পারেন । কাজ না হলে কোন হোমিওপ্যাথিক বিশেষজ্ঞের স্মরনাপন্ন হন।

১৬. আমার ওয়াইফ যদি সালফার নামক হোমিওপ্যাথিক ঔষধটি খায় আর আমি যদি তাকে চুমু দেই এবং সহবাস করি, আমার তো মনে হয় সালফারের ইফেক্ট এবং সাইড-ইফেক্ট দুটোই আমার ওপর পড়বে । আপনি কি বলেন?
উত্তর ঃ হ্যাঁ, তা ঠিক বলেছেন । এলোপ্যাথিক ডাক্তাররা বলেন, এলোপ্যাথিক ঔষধ খাওয়ার ৩০ মিনিটের মধ্যে সেটি রক্তের প্রতিটি কণায় পৌঁছে যায় । আমরা হোমিওপ্যাথিক ডাক্তাররা বলি, হোমিওপ্যাথিক ঔষধ খাওয়ার ৩০ সেকেন্ডের মধ্যে রক্তের প্রতিটি কণিকায় পৌঁছে যায়। কেননা হোমিওপ্যাথিক ঔষধ হলো নিউক্লিয়ার মেডিসিন বা এনার্জি মেডিসিন । আমরা দুধের শিশুকে ঔষধ না খাইয়ে বরং তাহার মাকে খাওয়াই । কেননা বুকের দুধের মাধ্যমে সেটি শিশুর শরীরে প্রবেশ করে এবং কাজ করতে থাকে । কাজেই বুকের দুধে যদি ঔষধ থাকে, তবে থুতু, যোনীরস এবং বীর্যেও ঔষধ থাকা স্বাভাবিক। আর সেক্ষেত্রে চামড়ার মাধ্যমে ঔষধের ইফেক্ট এবং সাইড-ইফেক্ট অন্যের উপর পড়াই স্বাভাবিক । তবে প্রশ্ন করতে পারেন, তাহলে কিছু কিছু রোগে বিশেষ করে যৌন রোগে স্বামী স্ত্রীকে এক সাথে চিকিৎসা করার একই ঔষধ আলাদাভাবে খাওয়ানোর প্রয়োজন কেন হয় ? আসলে স্বামী স্ত্রীর শারীরিক লক্ষণ, মানসিক লক্ষণ, রোগের তীব্রতা এবং মায়াজম্যাটিক গঠণ যেহেতু এক নয়, কাজেই একই যৌন রোগের জন্য হলেও তাদের দুই জনকে একই ঔষধ খাওয়ানো ঠিক নয় এবং ক্ষেত্র বিশেষে একই ঔষধ খাওয়ানো হলেও একই শক্তিতে খাওয়ানো ঠিক নয় ।

১৭. আমি বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজে গিয়েছিলাম আমার যৌন দুর্বলতার চিকিৎসার জন্য । ডাক্তার সাহেব আমাকে কয়েকটি ঔষধের পাশাপাশি আমেরিকার তৈরী দেড় হাজার টাকা দামী একটি ফুড সাপ্লিমেন্ট লিখে দিলেন । এভাবে ফুড সাপ্লিমেন্ট প্রেসক্রাইব করা কি উচিত? আপনার সময় নষ্ট করার জন্য দুঃখিত ।
উত্তর ঃ বিশেষ বিশেষ খাবার বিশেষ বিশেষ রোগের নিরাময়ে অনেক সাহায্য করিয়া থাকে । এজন্য ঔষধের পাশাপাশি রোগীদেরকে বিশেষ কোন খাবার অধিক পরিমাণে আহারের মৌখিক পরামর্শ দেওয়ার প্রচলন আছে । তাই বলিয়া নির্দিষ্ট কোন কোম্পানীর তৈরী খাবার খাওয়ার জন্য লিখিতভাবে প্রেসক্রাইব করা দৃষ্টিকটু । অসাধু কোন কোন এলোপ্যাথিক ডাক্তাররা এসব করিলেও হোমিওপ্যাথিক ডাক্তাররা ফুড সাপ্লিমেন্ট প্রেসক্রাইব করেন আপনার কাছে প্রথম শোনিলাম । সে যাক, কোন ডাক্তার বিশেষ কোন ব্রান্ডের ফুড সাপ্লিমেন্ট সাজেস্ট করিলেও আপনি সেটি বাদ দিতে পারেন।

১৮. একজন রোগীর শরীরে দেখলাম শত শত টিউমার, গুনলে হাজারের উপরে হতে পারে? দেখতে বড় বড় আঁচিলের মতো মনে হয় । ইহা কি রোগ?
উত্তর ঃ এলোপ্যাথিক পাঠ্য-পুস্তকে এই রোগের নাম দেওয়া আছে নিউরোফাইব্রোমেটোসিস বা স্মায়ুঘটিত টিউমার (neurofibromatosis) । এসব টিউমারকে বলা হয় নিরীহ (benign) অর্থাৎ ইহারা কখনও রোগীর ক্ষতি করে না । সাধারণত কখনও ক্যান্সারে পরিণত হয় না । তবে রোগীর বয়স বাড়ার সাথে সাথে এদের আকার বৃদ্ধি পায় । যদিও এলোপ্যাথিতে ইহার কোন চিকিৎসা নাই অর্থাৎ অপারেশান ছাড়া কিন্তু হোমিওপ্যাথিতে সঠিক ঔষধ নির্বাচন করা গেলে এটি নিরাময় করা সম্ভব । তাছাড়া পুরোপুরি নিরাময় করা সম্ভব না হলেও ইহাদের আকৃতি ছোট করে রাখা যায় সহজেই । রোগীর শারীরিক লক্ষণ, মানসিক লক্ষণ এবং মায়াজমের উপর ভিত্তি করিয়া সুনির্বাচিত ঔষধ প্রয়োগে এই রোগ নিরাময় করেছেন বলে অনেকের লেখায় দেখেছি । তবে তাহাতে কাজ না হলে ফাইটোল্যাক্কা, আয়োডিয়াম, স্যাংগুইনেরিয়া ক্যানাডেনসিস, আর্টিকা ইউরেন্স, ক্যালকেরিয়া ফ্লোরিকাম, শাইলিশিয়া ইত্যাদি ঔষধগুলি নিম্নশক্তিতে একটা পর একটা একমাস একমাস করে দীর্ঘদিন খাওয়ানোর মাধ্যমে আকার নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারেন ।

১৯. আমার শশুরের প্রস্রাবের সমস্যা শুরু হয় প্রায় দুই বছর আগে থেকে। রাতে প্রস্রাব এলে টের পেতেন না। বিছানায় হয়ে যেতো। আবার মাঝেমধ্যে বসা থেকে উঠার সময় বা হাঁটাচলা করার সময় ফোঁটা ফোঁটা পড়তে থাকতো। অনেক চিকিৎসার পর যখন কোনো উন্নতি না হয়ে খুব দ্রুত অবনতি হতে থাকলো তখন ডাক্তরের পরামর্শে শেষ পর্যন্ত অপারেশন করানো হলো। কিন্তু তাতেও কোনো ফল হয়নি। অপারেশনের পর প্রায় মাস দুয়েক এমন অবস্থা গেছে যে সারাক্ষণ অনবরত প্রস্রাব ঝরছে। উঠা, বসা, হাঁটা সব অবস্থাতেই। ঔষধ খেতে খেতে কিছুটা পরিবর্তন হয়ে এখানকার অবস্থা হলো দিনের বেলা বা জাগ্রত অবস্থায় প্রস্রাবের বেগ এলে তিনি টের পান। এবং নিজেই টয়লেটে গিয়ে সেরে আসেন। কিন্তু রাতের বেলা মানে মধ্যরাতের পর এতো পরিমাণ প্রস্রাব হয় যা রীতিমতো অকল্পনীয়। ডায়াপার পরা অবস্থাতেই ডায়াপার ভরে গিয়ে বিছানা ভিজে এমনকি মাঝেমধ্যে বালিশ পর্যন্ত ভিজে থাকে। ওনার অবস্থা দেখলে আমাদেরই কষ্ট হয়। এতো এতো চিকিৎসা করানো হচ্ছে তবুও কিছুতেই কিছু হয় না। জানতে চাচ্ছিলাম হোমিওতে এর কোনো সমাধান আছে কিনা। থাকলে আপনি কি আমাকে পরামর্শ দিয়ে ওনার চিকিৎসার জন্য সহযোগিতা করবেন? উল্লেখ্য ওনার বয়স ৭০ বছর। দুইবার স্ট্রোক হয়েছে, একবার হার্ট এটাক হয়েছে।
উত্তর ঃ Sabal serrulata Q নামক হোমিওপ্যাথিক ঔষধটি ২০ ফোটা করে রোজ ২ বার করে ৩ মাস খাওয়ান (আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে) । প্রথমে Oxalicum acidum নামক হোমিওপ্যাথিক ঔষধটি এক মাত্রা খাওয়াতে পারেন ২০০ শক্তিতে ।

২০. আমার পাঁচ বছরের মেয়ে শাজিনা । তার স্বভাব বড় অদ্ভূত । গরম যত বাড়তে থাকে সে তত মোটা জামা পড়তে থাকে । আবার শীত যত বাড়তে থাকে, সে তত পাতলা জামা পড়তে পড়তে এক সময় পুরোপুরি খালি গায়ে থাকা শুরু করে । বলেন এই রোগের ঔষধ কোনটি?
উত্তর ঃ অদ্ভূত ধরনের এবং পরস্পর বিপরীত ধরনের লক্ষণ বিশিষ্ট রোগের চিকিৎসায় একটি সুনির্দিষ্ট ঔষধ হইল ইগ্নেশিয়া এমারা। এটি প্রয়োগ করে দেখতে পারেন ।
আসলে এই ধরনের শিশুদের আদর যত্ন এবং খাওয়া দাওয়ার সমস্যাটাই সবচেয়ে বড় সমস্যা। আর অপুষ্টির জন্য আলফালফা শ্রেষ্ট ঔষধ । পাশাপাশি ঘুমের জন্যও এটি ভালো কাজ করে। ইহার আরেকটি একশান আছে আর তা হলো ইহা মানুষের দুঃখবোধ দূর করতে পারে এবং মনের মধ্যে আনন্দের অনুভূতি সৃষ্টি করে ।

২১.salix nigra ঔষধটা কি ছেলেদের সেক্স কমাতে পারে ? নাকি নরমাল রাখে ? আমার এক আপা আছেন তার হাজব্যান্ডের যৌনশক্তি (satzriasis) কমাতে হবে । কারণ লোকটা পরকীয়া করে ।
উত্তর ঃ হ্যাঁ, স্যালিক্স নাইগ্রা (salix nigra ) ঔষধটি পুরুষদের মাত্রাতিরিক্ত যৌন শক্তি কমিয়ে স্বাভাবিক করিতে পারে বা স্বাভাবিকের চাইতেও কমিয়ে দিতে পারে । তবে ইহা যৌনশক্তির স্থায়ী কোন ক্ষতি করে না । ইহা খাওয়া বন্ধ করার পরে যৌনশক্তি ধীরে ধীরে আবার নরমাল হয়ে যায় । ৫০ ফোটা করে রোজ দুইবেলা করে খাওয়ান আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে ।

২২. আমার মেয়েটার বয়স ৪ বছর । শাৱিৱীক কোন প্রবলেম বলতে শুধু হাত কচলায় কিন্তু মূল প্রবলেম হল একা একা চলাচল করে কখনও হাসে কখনও কাঁদেও আৱ নিজে কোন কিছু করতে পাৱেনা কেহ ডাকলে সাৱা দেয় না কিন্তু কানে শ্রবন করে৷ বহু ডাক্তাৱ দেখানো হয়েছে কিন্তু তাদের মুখে একই বুলি মেয়েটা অটিস্টিকের রুগী৷ বিঃদ্রঃ এখন আপনি কোন কোন সময় দেখেন একটু কষ্ট করে বললে ভাল হতো৷
উত্তর ঃ Thuja occidentalis CM এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা এক মাস পরপর একদিন খাওয়াবেন ৫টি বড়ি -এভাবে ৩ মাস ।

২৩. গর্ভবতী মহিলার হাত পা ফুলে গেছে । ৮ মাস । রোগীর বয়স ১৭ বছর । ১ম বাচ্ছা হবে। মারাত্নক ফোলে গেছে। এখন কি করুনীয় ?
উত্তর ঃ Alfalfa Q ঔষধটি ৫০ ফোটা করে রোজ ৩ বেলা খাওয়ান আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে । ইহাতে রক্তশূণ্যতা দূর হবে আবার প্রস্রাবও বৃদ্ধি পাইবে । তবে রোগীর শারীরিক লক্ষণ, মানসিক লক্ষণ, রোগের সম্ভাব্য কারণ এবং মায়াজমের উপর ভিত্তি করে ঔষধ নির্বাচন করতে পারলে আরো ভালো ফল পাওয়া যাবে ।

২৪. দুলাভাইয়ের সাথে বসে কথা বলছিলাম। অনেক্ষণ ধরে দেখলাম, সারাক্ষণ থুথু করে মুখ থেকে কিছু ফেলছে। মানে অনবরত থুথু করতেই থাকেন। জিজ্ঞেস করাতে বললেন মুখে চালের গুঁড়ার মতো কি যেন সারাক্ষণ আসতে থাকে। সেটা থুথু করে ফেলতে হয়। এটার ঔষধ কি কি আসতে পারে একটু সহযোগিতা করবেন প্লিজ ?
উত্তর ঃ সাধারণত যে-সব ঔষধে গলা শুকিয়ে থাকার লক্ষণ আছে, এমন কোন ঔষধ প্রেসক্রাইব করুন । সমস্যা চলে যাবে । কাজেই Bryonia অথবা Nux moschata খাওয়ান, এগুলোতে গলা শুকিয়ে থাকার লক্ষণ আছে । তবে রোগীর শারীরিক লক্ষণ, মানসিক লক্ষণ, রোগের সম্ভাব্য কারণ এবং মায়াজমের উপর ভিত্তি করে ঔষধ নির্বাচন করতে পারলে আরো ভালো ফল পাওয়া যাবে ।

২৫. আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ স্যার, আমার এক্টা সমস্যা হল যখন আমি ক্লাসে কিংবা কোন সেমিনারে কথা বলতে যায় তখন আমার মুখ থেকে কথা ভাল করে আসেনা (stage fright) জড়তা কাজ করে প্রচুর। ভাল কোন ওষুধ থাকলে দয়া করে আল্লাহর ওয়াস্তে সাজেশন দিন।
উত্তর ঃ যেদিনই আপনি কোন ইন্টারভিউ অথবা সেমিনারে লেকচার দিবেন, সেদিন সকালে Gelsemium sempervirens ৩০ ঔষধটি ১ ফোটা অথবা ৫টি বড়ি খেয়ে নিবেন । আশা করি এখন থেকে আপনার আর এধরনের কোন সমস্যা হবে না ।

২৬. ডা: সাহেব, আমার ছোট বোন অনার্স ১ম বর্ষে পড়ে। ওর মাথার বাম পাশে স্পর্শ করলে বা চুল আচাড়লে মাথা ঝিনঝিন করে ব্যাথা হয়। অনেক দিন থেকেই এ রকম হচ্ছে। দয়া করে কোন হোমিও ঔষধ প্রেসক্রাইব করলে উপকৃত হব।
উত্তর ঃ Avena Sativa Q নামক ঔষধটি ২০ ফোটা করে রোজ দুই বেলা করে খাওয়ান ১ মাস । আশা করি ঠিক হয়ে যাবে । আধা গ্লাস হালকা গরম পানিতে মিশিয়ে খাওয়াবেন ।

২৭. গলার কাছে কফ চলে আসে। কোন কাশি নাই, সবসময় শুধু কফ বের হয়।
উত্তর ঃ- Jaborandi Q ঔষধটি ১০ ফোটা করে রোজ ২ বার করে খান যতদিন আপনার সমস্যা দূর না হচ্ছে। তবে সমস্যা চলে গেলে অথবা অনেকটা উন্নতি হলেই ঔষধ বন্ধ করে দিবেন ।

২৮. ভাই আদাব নিবেন। আমার ছোট ভাইয়ের বউ সিজার করার পর মারা যায়। বড় মেয়ের বয়স ১৮ মাস ছোট মেয়ের বয়স ৩ মাস। কিন্তু দুটো বাচছা ঘুমাতে চায়না। সব সময় কান্না করে আর চারিদিকে কি খুজে। কিছু সময় ঘুমালে ঘুম ভেঙ্গে আবার কান্না শুরু করে। আবার বড় মেয়েটা কিছু খেতে চায় না। কি করতে পারি ভাই। বড় সমস্যায় আছি।
উত্তরঃ Alfalfa Q এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটি ৫ ফোটা করে দুজনকে রোজ ২ বার করে খাওয়ান ৬ মাস । দুধ, পানি, হরলিক্স বা সেরেলাক ইত্যাদি যে-কোন কিছুর সাথে মিশিয়ে খাওয়াবেন ।

২৯. ডা: সাহেব, আমার ডান কাঁদে হাতের জয়েন্টে বাতের/ স্নায়ুবিক ব্যাথা । কুমিল্লা সদর হসপিটালে হোমিও বিভাগে দেখাই। Nux vom ২০০ প্রতি রাতে খেতে দিল। উপকার পাচ্ছি না। এখন কি ওষুধ খেলে উপকার পাব, আপনার পরামর্শ চাই।
উত্তর – Chelidonium majus Q (Take this homeopathic medicine 10 drop 02 times daily for 15 days.) mixing with some water

৩০. হিপার সালফ খেয়ে ফোঁড়ার উৎপাত কমেছে কিন্তু পুরোপুরি নির্মূল হইতেছে না । এখন কি করা যায় ?
উত্তর ঃ আর্নিকা এবং হিপার ঔষধ দুইটি হইল ফোঁড়ার দুইটি শ্রেষ্ট ঔষধ । তবে শক্তি এবং মাত্রায় বাড়াবাড়ি হলে হিতে বিপরীত হতে পারে । সেক্ষেত্রে লক্ষণ অনুযায়ী অন্য ঔষধ মার্কসল এবং ইগ্নেশিয়া প্রয়োগ করেন ।

৩১. স্যার আসসালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ, স্যার আপনার দোয়ার বরকতে গতকাল ১১-১১-২০১৫ ইং তারিকে রাত ৯ টা থেকে ১০ টা ৩০ মিনিটে আমাড় ছোট ভাইয়ের উড়ুর হাড়ের অপারেশণ শেষ হোয়েছে। ডাক্তার ভাঙ্গা হাড়ের উপর পাত বসিয়ে দিয়েছে । এখন তো ঘা কাঁচা ,ঘা শুকাতে সময় লাগবে, এই অবস্থায় কী CALCAREA PHOS 6X ঔষধ টি খাইয়াতে পারব । যাতে INFECTION না হয় এবং ঘা তাড়াতাড়ি শূকায় এমন কোনো ঔষধ আছে ।
উত্তর ঃ প্রথমে ঘা শুকানোর জন্য Arnica montana ৬ ঔষধটি ৫ বড়ি করে রোজ তিন বেলা করে ৭ দিন খাওয়াতে পারেন ।

৩২. হোমিওপ্যাথিক ঔষধ আলফালফার কি কোন সাইড-ইফেক্ট আছে?
উত্তর ঃ এই ঔষধের একটাই সাইড-ইফেক্ট আছে আর তা হলো আপনার ওজন বেড়ে যাইতে পারে ।

৩৩. আসসালামু আলাইকুম আজ আমার একটা দীর্ঘ সমস্যার কথা আপনার সাথে শেয়ার করছি। সমস্যাটি হল প্রস্রাবজনিত। এই সমস্যায় আমি ভুগছি ১৯-২০ বছর থেকে। আমার বয়স এখন ২৬। সমস্যা হল আমি প্রস্রাব করে উঠার পর ফোটায় ফোটায় প্রস্রাব ঝরে। অনেককেই বলেছি কিন্তু কেই সমাধান দিতে পারে নি। কেই বলেছে পরিপূর্নভাবে প্রস্রাব করতে, আবার কেই কেই বলেছে প্রস্রাব করার পর কিছ্ক্ষুন বসে থাকতে কমোডে। কিন্তু কোন কাজই হয়নি। প্রস্রাব করার পর কিছ্ক্ষুন বসে থাকার পর উঠে হাটলেই কয়েক ফোটা প্রস্রাব ঝরে যায়। একারনে আমি কখনোই প্রস্রাব করার পর নামাজ পরতে পারি না। জানিনা এটা কোন রোগ কিনা। আপনার মতামত চাইছি, সাথে সাথে হোমিওপাথিতে এর কোন সমাধান থাকলে তারও পরামর্শ চাইছি। ধন্যবাদ
উত্তর ঃ Sabal serrulata Q নামক হোমিওপ্যাথিক ঔষধটি ২০ ফোটা করে রোজ তিন বেলা খান দুই মাস (আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে) । উপকার না হলে কোন হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসকের স্মরনাপন্ন হন ।

৩৪. প্রিয় স্যার, তিন দিন আগে সিজারের মাধ্যমে আমার একটি কন্যার জন্ম হয়েছে । মেয়ের মাতার যেহেতু অপারেশান হয়েছে তাই তাকে কি ঔষধ খাওয়াবো তাহা জানালে অনেক উপকৃত হবো । আর মেয়েকে কি ঔষধ খাওয়াবো দয়া করে জানাবেন কি?
উত্তর ঃ আপনার মেয়ের মাকে Staphisagria ৩০ ঔষধটি ৫ বড়ি করে রোজ ২ বেলা করে ৩ দিন খাওয়ান । এতে অপারেশানের ব্যথা দ্রুত চলে যাবে এবং অপারেশানের কাটা জায়গাটি দ্রুত জোড়া লেগে যাবে । আপনার স্ত্রীকে Alfalfa Q  ঔষধটি রোজ রাতে ২০ ফোটা করে আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে খাওয়াবেন এক বছর । ইহাতে তার এবং তার কন্যার স্বাস্থ্য ভালো থাকবে এবং অসুখ-বিসুখ কম হবে । আপনার কন্যাকে তিন মাস পর পর Calcarea carb ২০০ ঔষধটি একবার করে খাওয়াবেন দুই বছর । তাতে তাহার শারীরিক-মানসিক বৃদ্ধি ঠিক মতো হবে আশা করি ।

৩৫. আসসালামুআলাকুম আমি মদিনাই থাকি? আমার নাক ডাকার রোগ আছে মুক্তি পাবার উপায় আছে কি?
উত্তর ঃ Aurum metallicum 50M ঔষধটি একদিন মাত্র ৫টি বড়ি খাবেন । তিন মাসের মধ্যে নিরাময় না হইলে আবার যোগাযোগ করিবেন ।

৩৬. প্রিয় স্যার, আমার কন্যার মা ঠান্ডা পানি ধরলে, ঠান্ডা পানিতে গোসল করলে, ঠান্ডা বাতাস নাকে লাগলে এক সাতে ১০ থেকে ২০ টা হাঁচি দেয়, হাঁচি দিতে দিতে চোক ও নাকে থেকে পানি জরে এবং দুর্বল হয়ে যায়। এই সমস্যা ছোট কাল থেকে। অ্যালার্জির ঔষধ খাইলে কমে কিন্তু সারা দিন গুম গুম ভাব থাকে। হোমিও কি ঔষধ খায়ান যাইতে পারে দয়া করে বলবেন কি।
উত্তর ঃ এলার্জির দুটি শ্রেষ্ট ঔষধ হলো Calcarea carb 10M এবং Thuja occidentalis 10M । এই একটি প্রতি মাসের এক তারিখে খান ৫ বড়ি এবং অন্যটি প্রতি মাসের পনের তারিখে খান ৫ বড়ি । এভাবে তিন থেকে ছয় মাস খান । আশা করি এলার্জির সমস্যা চলে যাবে ।

৩৭. শুধু মাত্র মানসিক লক্ষণে ঔষধ প্রয়োগের ব্যাপারে আপনার মতামত চাই।
উত্তর ঃ হোমিওপ্যাথিতে ঔষধ নির্বাচন করা খুবই অদ্ভূত একটি বিষয় । অনেক সময় দশটি লক্ষণের ওপর ভিত্তি করে দেওয়া প্রেসক্রিপশানও ভুল প্রমাণিত হয় । আবার অনেক অনেক সময় একটি লক্ষণের উপর ভিত্তি করে দেওয়া প্রেসক্রিপশানও সঠিক প্রমাণিত হয় । সেটি শারীরিক বা মানসিক লক্ষণ হতে পারে । তবে কেবলমাত্র শারীরিক বা মানসিক লক্ষণের উপর ভিত্তি করে প্রেসক্রিপশান করা সঠিক হোমিওপ্যাথি নয় । সঠিক হোমিওপ্যাথিক প্রেসক্রিপশান হলো শারীরিক লক্ষণ, মানসিক লক্ষণ, মায়াজম এবং রোগের কারণ এই চারটি ভিত্তি করে দেওয়া ।

৩৮. নককুনি এর জন্য সার আপনার মতামত কি? সহজ। অর্থাৎ আপনার রোগলিপি হিসাবে? এখন ব্রিস্টি তাই এই রোগি পাচ্ছি। দেখলাম ছোট বাচ্চার পায়ের বাজে অবস্থা
উত্তর ঃ ক্যালকেরিয়া ফস ৬ আর সাইলিশিয়া ৬ ঔষধ দুটি অদলবদল করে খাওয়ান দীর্ঘদিন, ঠিক হয়ে যাবে । তবে পূঁজ বেশী থাকলে প্রথমে হিপার সালফ খাওয়াতে পারেন এক মাত্রা ।

৩৯. স্যার আমি একটু সাহায্য চাই । আমার দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া ভাগ্নে গত তিন চার দিন যাবত পাগলামো করছে । বেশী কথা বলে, লোকজনকে বকা দেয় । আগে খুব কম কথা বলত ।
উত্তর ঃ বেশী কথা বলা এবং গালাগালি করা লক্ষণগুলি Lachesis ঔষধটির দিকে ঈঙ্গিত করে । কাজেই ২০০ শক্তিতে এক মাত্রা খাওয়ান । ২৪ ঘন্টার মধ্যে উন্নতি না হলে আবারো এক মাত্রা খাওয়াতে পারেন ।

৪০. Assalamualikum. Sir আমার মা বয়স ৬৫ বেশি দুশ্চিন্তা করেন মাঝে মধ্যে bp high ১৮০ হয় যখন ছেলে দের ভবিষ্যতে নিয়া টেনশন করেন আর কে কি বলে এইটা নিয়া খুব দুশ্চিন্তা করেন খাবার রুচি একদম নাই আপদত আমি সকাল রাতে আলফালফা ১৫+০+১৫ দিচ্ছি please sir
উত্তর ঃ Avena sativa Q ঔষধটি ২০ ফোটা করে রোজ ২ বেলা করে খাওয়ান । তাতে কাজ না হলে Natrum muriaticum ঔষধটি নিম্নশক্তিতে খাওয়াতে পারেন ।

৪১. স্যার, আসসালামু আলাইকুম। আমি বেশ কয়েক বছর যাবত কিছু সমস্যায় ভুগছি। ডাক্তাররা আমার মানসিক রোগ হয়েছে বলেন। মেজর ডিপ্রেসিভ ডিসঅর্ডার বলে আমাকে প্রচুর এন্টিডিপ্রেশেন্ট দিয়েছে। আমার সামান্যতম উন্নতি হয়নি। আমার প্রধান সমস্যা হলো ফ্যাটিগ মানে অবসন্নতা, এংজাইটি, মনোযোগ দিতে না পারা এবং মেমোরি দুর্বলতা। আমি শুনেছি অতিরিক্ত মাস্টারবেশন করলেও এমন হয়। কিন্তু ডাক্তারা বলেন মাস্টারবেশন শরীরের জন্য ক্ষতিকর নয়। এখন আমি কি করব? কোন ঔষধেই কাজ হচ্ছেনা। এন্টিডিপ্রেশেন্ট খেলে আমার অবসন্নতা আর দুর্বলতা আরো বেড়ে যায়। আমাকে সাহায্য করুন
উত্তর ঃ হস্তমৈথুন শরীরের কোন ক্ষতি করে না ঠিক, তবে যারা হস্তমৈথুন করে তাদের মধ্যে একটি অপরাধবোধ, একটি পাপবোধ একটি অনুশোচনা কাজ করে আর তাহাই স্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর । আপনি Acidum phosphoricum 6x ঔষধটি ১০ ফোটা করে রোজ ২ বেলা করে ১৫ দিন খান (আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে) । যত দ্রুত সম্ভব একজন হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করেন ।

৪২. স্যার আমার কুড়ি দিন বয়সের মেয়ে আমাশয়ে  ভোগতেছে সাথে আছে পেট ব্যথা । আমি তার মাকে লাইকোপোডিয়াম এবং পরে মার্ক সল ঔষধটি খাইয়েছি কিন্তু বাচ্চার কোন উন্নতি হয় নাই । সে কেবল কেদেই যাচ্ছে ।
উত্তর ঃ আমাশয় হলে প্রথমে Belledonna, Nux vomica বা Aconite ইত্যাদি ঔষধ দিয়ে চিকিৎসা করবেন। এগুলোতে ব্যর্থ হলে অন্য ঔষধের সাহায্য নিতে পারেন । ঔষধ সরাসরি বাচ্চাকে খাইয়ে দেন একটি বড়ি অথবা এক গ্লাস পানিতে এক ফোটা অথবা পাঁচটি বড়ি মিশিয়ে সেখান থেকে এক চামচ পানি খাওয়াতে পারেন ।

৪৩. খাবারে একটু এদিক সেদিক হলেই পেট ফাঁপে এবং অনবরত বায়ু হয় । বার বার মল ত্যাগ করার পর এক সময় পেট আপনা আপনি ঠিক হয়। আমি গড়নে মোটা মেদ বহুল শরীর। বয়স ৪৫। খাটি পেটে বায়ু বেশি হয় । ঢাকা মেডিকেলের প্রাক্তন প্রিন্সিপ্যালের ব্যবস্থায় ঔষুধ খাচ্ছি কিন্তু কোনো উন্নতি নেই। উপায় জানিয়ে সুখি করুন।
উত্তর ঃ Carbo vegitabilis 10M ঔষধটি একদিন মাত্র ৫টি বড়ি মাত্র একদিন খাবেন। ১৫ দিনের মধ্যে ভালো না হলে আরেকবার ৫টি বড়ি খেতে পারেন ।

৪৪. ভাই, আমার ডান বগলের নিচে হালকা ব্যাথাযুক্ত গুটি হইছে, এমনিতে দেখায়, কম বুঝা যায়, হাত দিলে গুটি বুঝা যায় চাপ দিলে ব্যাথা করে, মাঝে মাঝে হালকা ব্যাথা অনুভুত হয়। এখন কি ঔষধ খাব?
উত্তর ঃ Calcarea phos 6x ঔষধটি ৫ বড়ি রোজ ২ বার হিসাবে ১ মাস খাান ।

৪৫. অন্ডকোষে ছোট ছোট আঁচিলের মত কিছু গুটি হয়েছে এর জন্য কি ঔষধ সেবন করা লাগবে? যদি বলতেন তবে কৃতজ্ঞ থাকতাম।
উত্তর ঃ Thuja occidentalis CM এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা একদিন খাবেন ৫টি বড়ি।

৪৬. স্যার আসসালামু আলাইকুম আসসালাম, আমার কন্যার বয়স ৬ মাস, জিহ্বা ও ঠোটে ঘা হয়েছে, সর্দি লেগেছে, গ্রামে আছে, মনে হচ্ছে গরমের কারনে হয়েছে, Nystate খাওয়ানো হয়েছে, কিছুটা কমেছে, একেবারে যায় নাই, দয়া করে বলবেন কি, কি ঔষধ খাওয়াব।
উত্তর ঃ Natrum muriaticum 30 ঔষধটি একদিন খাওয়ান ৫টি বড়ি ।

৪৭. আমি গত প্রায় আড়াই মাস আগে হাত ঘামানো বন্ধের জন্য একজন ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী Thuja 10m, Pulsatilla 10M, Medorrhinum 10M, Ambra Grisea 10Mএই চারটি ওষুধ চার সপ্তাহে খাই। এক মাস বিরতি দিয়ে আবার শুধু thuja আর pulsatilla খাই দুই সপ্তাহে। কিন্তু হাত ঘামানো সারে নাই। যাই হোক আমি গত সপ্তাহে মিরপুর ১৪ নাম্বারে সরকারী হোমিওপ্যাথী হাস্পাতালে যাই এবং বহ্বিভাগে দেখাই। সেখানকার ডাক্তার আমাকে বলে যে আমার এসব ওষুধ এতো উচ্চ মাত্রায় খাওয়া ঠিক হয় নি। এরপর থেকে আমি প্রচন্ড মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছি। এই ওষুধ গুলো খাওয়ার কারনে কি আমার কোনও শারিরিক ক্ষতি হবে ? কোনও সাইড ইফেক্ট আছে? আমার কি কোনও মেডিকেল টেস্ট করানোর প্রয়োজন আছে? দয়া করে আমাকে জানান। আমার সামনে পরীক্ষা, আমি কিছুই পড়তে পারছি না। খুব মানসিক যন্ত্রনার মধ্যে আছি। একটু সাহায্য করেন।
উত্তর ঃ হোমিওপ্যাথিক ঔষধের সাইড ইফেক্ট খুবই কম, নাই বললেই চলে । তাছাড়া আপনার যদি জ্বর, কাশি, ডায়েরিয়া, আমাশয়, পেট ব্যথা, মাথা ব্যথা ইত্যাদি কোন সাইড ইফেক্ট দেখা দেয়, সেজন্য নির্দিষ্ট ঔষধ আছে, খেলেই চলে যাবে । অযথা টেনশানের কিছু নাই ।

৪৮. আস্সালামুআলাইকুম স্যার ভাল আছেন। আমার ছোট বোন এর একটা খুব জটিল সমস্যা হচ্ছে। সে কোন কিছু নিয়ে বেশি চিন্তা করলে সাথে সাথে শরির কাপতে শুরু করে দিচ্চে আর শ্বাস প্রস্বাস নিতে কষ্ট হচ্চে। আর হটাৎ করে দাতি লেগে অজ্ঞান হয়ে যাচ্ছে। এই এক মাসে ৬ বার মেডিকেল এ ভর্তি করলাম ডাঃ বলছে কোন রোগ নাই। প্লিজ একটু বলবেন কেন এমন হচ্ছে। আর রাত হলেই আজে বাজে স্বপন দেখছে আর ঘুমের ভিতর কথা বলছে।।।
উত্তর ঃ Gelsemium semparvirens 200 এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা একদিন খাবেন ৫টি বড়ি ।

৪৯. স্যার আমি ২০১১ সালে রাজশাহী হোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ হতে ডিএইচএমএস পাশ করেছি। এখন আমি চিকিৎসাসেবা প্রদান করতে আগ্রহী। আমি একটি চেম্বার দিতে চাচ্ছি। সেক্ষেত্রে আইনগত কিছু করণীয় আছে নাকি? চিকিৎসার জন্য রেজিষ্ট্রেশন করা কি খুব জরুরী না করলে কোন সমস্যা আছে কি না? দয়া করে জানাবেন?
উত্তর : আপনি যদি চেম্বার দেন তবে আপনাকে সিটি কর্পোরেশান থেকে ট্রেড লাইসেন্স নিতে হবে । চেম্বারে যদি ঔষধ রাখেন তবে ড্রাগ লাইসেন্স নিতে হবে। চেম্বারে যদি এলকোহল অর্থাৎ রেকটিফাইড স্পিরিট রাখেন তবে নারকোটিকস লাইসেন্স নিতে হবে ।

৫০. আসসালামু আলাইকুম। স্যার, আমার জিহ্বাতে ঘা, জিহ্বা নড়াচড়া করলে একটু লাগলেই বেথা পাই। কি ওসদ এবং কিভাবে এবং কত শক্তিতে খেতে হবে দয়াকরে পরিমাণ বললে উপকৃত হব। B-50 Forte® খেলে সেরে যায় আবার কয়দিন পর হয়।
উত্তর ঃ Natrum muriaticum 6x এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা প্রতিদিন একবার করে খাবেন ৫টি বড়ি এক মাস।

৫১. স্যার আমার কন্নার বয়স ৮ মাস. কন্নার মার বুকের দুধ কিছু টা কমে গেছে, কন্না বাইরের খাবার খেতে চায় না, এখন বুকের দুধ বারানুর জন্য কন্নার মাকে কি অওসুদ খায়াতে পারি দয়া করে বলবেন কি
উত্তর ঃ Urtica urens Q ঔষধটি ২০ ফোটা করে আধা গ্লাস পানিতে মিশিয়ে রোজ দুইবার করে কমপক্ষে তিনদিন খান।

৫২. আস্ সালামু আলাইকুম। স্যার আপনার কাছে একটা সমস্যা নিয়ে লিখতেছি সময় পেলে জবাব দিবেন আশাকরি। বিয়ে করেছি ২০১৪ সালে দিনকাল সুন্দর ভাবে কাটতেছে আলহামদুলিল্লাহ একটা মেয়েও আছে। সবকিছু ঠিকমত চলতেছিল। আমি বিদেশ ছিলাম কিছু সমস্যার হওয়ার কারণে গত মার্চে দেশে চলে আসি। আসার পরেও দু এক মাস ঠিক ছিল। কিন্তু এর পর থেকে আমার পুঃলিঙ্গটি ঠিকমত উওেজিত হয় না। বউয়ের রাগা রাগি প্রতিদিন স্যার মহা সমস্যায় আছি। আপনার কাছ থেকে একটা সামাধান চাই।আমি আপনার লিখা গুলু প্রতিদিন পড়ি। এখনো কোন ডাক্তার দেখাই নি। প্লিজ স্যার আমাকে কোন সামাধান দেবেন আশাকরি। মাআস্সালাম
উত্তর ঃ উত্তর ঃ আলফালফা (Alfalfa Q), এভেনা সেটাইভা (Avena sativa Q) ঔষধগুলো সাতদিন সাতদিন করে একটার পর আরেকটা করে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খাবেন, ১০ ফোটা করে রোজ ২ বেলা ।

৫৩. আমার স্বামীর মাড়ির একটা দাঁতের গোড়া থেকে রক্ত বের হয়। কোন যন্তনা নাই।কি ঔষধ দেব স্যার।
উত্তর ঃ Calcarea phos 6x ঔষধটি ৫ বড়ি রোজ ২ বার হিসাবে ১ মাস খান ।

৫৪. আমার নাকের মাংস বৃদ্দি হয়েছে, মাথা ব্যাথা করে। আর হা করলে বাম কানে ব্যাথা করে। ও গলাতে ক্রণিক ফেরেনজাইটিস এর সমস্যা আছে সাইনুস ই ক্রণিক প্লিজ হেল্প মি স্যার।
উত্তর ঃ Aurum metallicum 50M ঔষধটি একদিন মাত্র ৫টি বড়ি খাবেন । এক মাসের মধ্যে নিরাময় না হইলে আবার যোগাযোগ করিবেন ।

৫৫. আস সালামু আলাইকুম স্যার। আমি মোঃ ফরহাদ, বয়সঃ৩৫ উচ্চতাঃ ৫ ফিট ৮ ইঞ্চ। আমি বিবাহিত। আমার ০১ ছেলে ০১ মেয়ে। আমার দ্রুতবীর্যপাত হয়। ( বিবাহর পর থেকেই তা অনুভব) কখনো সহবাসের শুরুতে কখনো সহবাসের ৩০-৪০ সেকেন্ড পর বীর্যপাত হয়ে যায়। এই সমস্যা দুরকরার জন্য হামদদ ও হোমিও চিকিৎসা নিয়েছি কোন রেজাল্ট পাইনি। আমার প্রসাবে কোন জ্বালা পুড়া হয় না কোথ দিলে বীর্য ও বাহির হয় না।আমার যখন লিঙ্গ যখন উত্তেজিত হয় তখন লিঙ্গের মাথায় দুই তিন ফোটা পিচ্ছিল তরল পানি বেড় হয়। আমার স্ত্রী অনিয়মিত মাসিক হয়। বিয়ের পূর্বে মাঝে মধ্যে হস্ত মৈথন করতাম।
উত্তর ঃ tarentula hispanica 30 ঔষধটি প্রতি শুক্রবার সকালে খাবেন ৫টি বড়ি । এভাবে ১ মাস খেয়ে পরে জানাবেন।

৫৬. আমি মোটা হতে চাই কি ঔষধ খেতে হবে ।
উত্তর ঃ আলফালফা (Alfalfa), এভেনা সেটাইভা (Avena sativa), ক্যালি ফস (Kali phosphoricum) ইত্যাদি ঔষধগুলো সাতদিন সাতদিন করে একটার পর আরেকটা করে নিয়মিত দৈনিক খাবেন । ২০ ফোটা করে দুইবেলা এবং ৫ বড়ি করে দুইবেলা ।

৫৭. আসসালামু আলাইকুম। আমার বয়স ৩০.আমার মাথার চুল এত পরছে যে মাথার তালুর চুলের গোরা দেখা যায়।১ সপ্তাহ আগে চুল নেড়া করে ফেলেছি।এখন দেখি যে চুল গজাচ্ছে তার মাঝে মাঝে চুল নাই,যেন পাখি এসে চুল খেয়ে গেসে।মাথায় তেলতেলে খুস্কি আছে।আমার ঘামে খুবি দুর্গন্ধ হয়।মেজাজ খুব খিটখিটে থাকে।অনক কিছু ব্যবহার করেছি,ফল পাইনি।এখন মাথায় ঘ্রিতকুমারি লাগাচ্ছি।দয়া করে আমাকে একটা সমাধান দেন।
উত্তর: Merc sol 50M এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা একদিন খাবেন ৫টি বড়ি এবং ১৫ দিন পরে Thuja occidentalis 50M এই হোমিওপ্যাথিক ঔষধটা একদিন খাবেন ৫টি বড়ি ।

৫৮. ভাই আমার স্ত্রীর শরীর খুবই শুকিয়ে গেছে, ওজন কম। নরমাল ডেলিভারির হযেছিল কিন্ত নার্সের ভুলের কারনে সাথে সাথে ডি এন সি করতে হয়েছিল, তার ওজন মাত্র ৩৮ কেজি, বয়স, ২৩. শরীর দূর্বল। তাকে কোন ভিটামিন খাওয়ানো উচিত, অনুগ্রহ করে জানান।
উত্তর ঃ বেলিস পিরেনিস (Bellis perennis Q), আলফালফা (Alfalfa Q) এবং এভেনা সেটাইভা (Avena sativa Q) ঔষধগুলো সাতদিন সাতদিন করে একটার পর আরেকটা এভাবে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে খাওয়াবেন, ২০ ফোটা করে রোজ ২ বেলা হিসাবে আধা গ্লাস পানির সাথে মিশিয়ে ।

৫৯. ৬. ১২ -১৬ তারিখ হতে ১৪ দিন যাবত আপনার পরামর্শ মোতাবেক ওষুধ খাইতেছি । আমার রোগের তেমন কোন পরিবর্তন হচ্ছে না। এই ১৪ দিনে আমার ৪ বার স্বপ্ন দোষ হয়েছে। ঘুমের ভিতরে স্বপ্নে হঠাৎ হঠাৎ মেয়ে মান্ষু দেখা যায়, সব সময়ে মেয়ে মান্ষু দেখা যায় না। সাধারণত ঘুমে থাকা অবস্থায় অনুভব করি এমনি এমনি ধাতু বের হয়ে যাচ্ছে। ঘুম ভেঙে যাওয়ার পর দেখি ধাতু বের হয়ে গেছে । আমার এক সময় হস্তমৈথুনের বদ অভ্যাস ছিল, সেটা অনেক পূর্বেই তওবা করে ছেড়ে দিয়েছি। স্বপ্ন দোষ থাকা অবস্থায় আমি এক মেয়ের সাথে অবৈধ প্রেম করেছিলাম। সেটাও তওবা করে ছেড়ে দিয়েছি। তার সাথে আমি অনেক দিন সেক্স করেছিলাম , কমপক্ষে ১০ দিন করেছিলাম । প্রতিবারই তাকে ধরতে ধরতে, চুম্বন করতে করতেই ১ মিনিটে আমার ধাতু বের হয়ে যেত। সে তৃপ্তি পেত না। এই অবস্থায় আমি কোন মেয়েকে বিয়ে করতে ভয় পাচ্ছি।স্বপ্ন দোষের কারনে আমার লিঙ্গ আগের মত শক্ত হয় না, নরম হয়ে গেছে।শরির অত্যন্ত দুর্বল হয়ে গেছে।মাঝে মাঝে রাতে ২ বার স্বপ্ন দোষ হয়। শীতের রাত, এই স্বপ্ন দোষের কারনে আমি ফজরের নামাজ ঠিকমত আদায় করতে পারতেছি না।বুঝতে পারতেছিনা আমার এখন করনীয় কি ?
উত্তর: আপনার রোগের চিকিৎসা হইল বিয়ে করা । বিয়ে করলে স্বপ্নদোষ থাকবে না । বিয়ের পরে যৌন দুর্বলতা অনুভব করলে কোনো হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করবেন।

৬০. ভাই প্রচুর গুড়া কৃমি বয়স ৩৩বৎসর, এ্যালোপ্যাথিক ঔষধ সাস্পেন্সান ৬টি ট্যাবলেট খেলে সর্বচ্চো মাস খানিক ভাল থাকে তারপর মলদ্বার এর কাছে এসে ভিষন চুলকায় এবং মাঝে মাঝে বেরহয়ে পড়ে,স্যর দয়া করে লক্ষণ বিবেচনা করে ঔষধ শক্তি সহ বলতে জনাবের মর্জি হয়! জাঝাকাল্লাহ
উত্তর: Natrum phos 30 ঔষধটি ১ ফোটা বা ৫টি বড়ি ১ বার খান । প্রয়োজন হলে দুয়েক দিন পরে পুণরায় খেতে পারেন ।

৬১. পান খাওয়ার নেশা দূর করার কোন মেডিসিন আছে?
উত্তর: পান খাওয়ার নেশা মানে তামাক-জর্দার নেশা । এটা তামাক থেকে তৈরী Tabacum ঔষধটি খেলে চলে যাবে । রোজ রাতে ৫ বড়ি করে ১৫ দিন খেতে পারেন ।

৬২. ইয়াবা, গাঁজা, ভাং, মদ ইত্যাদির প্রতি আসক্তি নির্মূলের কোন উপায় থাকলে তা বাতিয়ে দিন । বর্তমানে এই মাদকাশক্তি এ দেশের জন্য একটা ভয়ঙ্কর সমস্যা ।
উত্তর: ইয়াবার জন্য Avena sativa Q আর গাজার জন্য Cannabis indica Q ঔষধটি খেতে পারেন । নিম্নশক্তিতে রোজ ২ বার করে খেতে পারেন ।

৬৩. স্যার, কেমন আছেন? ব্যার্থ প্রেমিক, যার বার বার প্রেমিকার কথা মনে পড়ে* মনে কষ্ট লাগে* কি ঔষধ দিব?
উত্তর: নতুন ঘটনা হলে Ignatia amara 200 আর পুরাতন ঘটনা হলে Natrum muriaticum 200 ঔষধটি খেতে হবে । একবার খাওয়াই যথেষ্ট ১ ফোটা অথবা ৫টি বড়ি। তবে প্রয়োজন হলে কিছুদিন পরপর পুণরায় খেতে পারেন ।

৬৪. খাবার রুচি ভাল, কোষ্ঠকাঠিন্য আছে, খাই কিন্ত সাস্থ্য হয়না। দয়াকরে কিছু মেডিসিন প্নেসক্রাইব করুন।মোটা হবার জন্য কিছু পরামর্শ দিন। (আমি বিবাহিত)
উত্তর: মোটা হওয়ার মধ্যে ক্ষতি ছাড়া কোন উপকার নাই । আর বিয়ে করলে এমনিতেই অনেকে মোটা হয়ে যায় । সে যাক, Thyroidinum 1x ঔষধটি ৩ দিন পর পর একটি বড়ি খাবেন । এভাবে ৩ মাস বা আরো বেশী দিন খেতে পারেন ।