Breaking News

পালসেটিলা (Pulsatilla)

পালসেটিলা (Pulsatilla)

ক্রিয়াস্থানঃ পাকস্থলী, অন্ত্র, চক্ষু, কর্ণ, নাসিকা, মূত্রযন্ত্র, জননেন্দ্রিয়, জরায়ু এবং সন্তান উৎপাদনকারী যন্ত্রসমূহের শ্লৈষ্মিক ঝিল্লী ও শিরাসমূহের উপর পালসেটিলার প্রধান ক্রিয়া প্রকাশ পায়।

নির্দেশক লক্ষণঃ রোগী সর্বদাই খোলাবাতাসে থাকিতে ইচ্ছা করে এবং তাহাতে সুস্থবোধ করে। ক্রমাগত পরিবর্তনশীল বেদনা, বেদনা প্রায় শরীরে একধারে হয়। কর্ণে বেদনা, তৎসহ বধিরতা, যেন কান বন্ধ হইয়া গিয়াছে। দন্ত বেদনায় মুখে ঠান্ডা জল রাখিলে উপশম হয়, গরম ঘরে গেলে বেদনায় বৃদ্ধি ও মুক্ত বায়ু সেবনে উপশম বোধ। আধ কপালে মাথা ধরা, তৎসহ মুখে বিস্বাদ এবং তৃষ্ণার অভাব। ভালভাবে রজঃস্রাব না হইলে মাথা ধরা। ঘৃত পক্ক ও চর্বিযুক্ত খাদ্যাদি আহার করিয়া উদরাময়, বমন অজীর্ণ ইত্যাদি পীড়ার উৎপত্তি। উদরাময়ে প্রতিবারই মলের রঙ পরিবর্তনশীল। রাত্রিতে উদরাময় বৃদ্ধি। সকল লক্ষণ সন্ধ্যাকালে প্রকাশ পায়। আমাশয়ে রক্ত ও আম মিশ্রিত বাহ্য, সন্ধ্যাকালে শীত শীত বোধ। অসাড়ে প্রস্রাব নির্গত হয় বিশেষ করিয়া শিশুদের শয্যায় প্রস্রাব। অনিয়মের ফলে রজস্রাব পীড়া, রজঃস্রাব অত্যন্ত বিলম্বে ও অল্প পরিমাণে হয়। পা জলে ভিজিলে রজঃস্রাব বন্ধ হয় বা থাকিয়া হয়। তৎসহ সন্ধ্যাকালে শীত শীত বোধ। শে^তপ্রদর, ঘন মাখনের মত, রজঃস্রাবের পর উহার বৃদ্ধি। শিশুদের স্তন্য পান করিলে মাতার বুকের ভিতর বেদনা বোধ, ঘাড়ে পিঠে টনটনানি। এই বেদনা একস্থান হইতে অন্যস্থানে পরিচালিত হয়। প্রমেহ স্রাব বন্ধ হইয়া অন্ডকোষ, স্পার্মাটিক কর্ড ইত্যাদিও স্ফীতি ও বেদনা। নাসিকা হইতে পাকা সর্দি নির্গমন ও নাসিকায় কোন বস্তর গন্ধ না পাওয়া। পিপাসা শূন্য সবিরাম জ¦র বৈকালে ও সন্ধ্যাকালে জ¦র, জ¦রে শীতই প্রবল।

মানসিক লক্ষণঃ রোগীর মানসিক লক্ষণসমূহ পরিবর্তনশীল। এই হর্ষ এই বিষাদ। রোগী অত্যন্ত আবেগ প্রবণ। রোগীনী খুব অভিমানী, শান্ত ও মৃদু স্বভাবের। রোগী কখনও ক্রোধানিত হয় না। সব সময় আমোদ প্রমোদে কাটাতে চায়।

প্রয়োগ ক্ষেত্রঃ রমনীদের যাবতীয় পীড়া। যেমনঃ বাধক বেদনা, শে^তপ্রদর, প্রসব বেদনা, ভ্যাঁদাল ব্যাথা, ফুল আটকান, সুতিকা স্তম্ভ, ঋতু বন্ধ হইয়া অন্যস্থান হইতে রক্তস্রাব, গর্ভাবস্থায় নানা প্রকার পীড়া, প্রভৃতিতে ইহা ব্যবহৃত হয়। ইহা ছাড়া অর্জীণ, উদরাময়, অন্ডকোষ প্রদাহ, প্রমেহ, অন্ডকোষে জল সঞ্চয়, কর্ণের পীড়া, নাসিকার পীড়া, সর্র্দিকাশি, চক্ষুপীড়া, জ¦র, সবিরাম জ¦র, কোষ্ঠবদ্ধতা, বাত, শিরপীড়া, স্ফোটক প্রভৃতি।

বৃদ্ধিঃ উত্তাপে, গুরুপাক দ্রব্যে, ঘৃত ও চর্বিযুক্ত খাদ্যে, আহারের পর, সন্ধ্যাকালে, গরম ঘরে, বামদিকে শয়নে পা ঝুলাইয়া রাখিবে।

উপশমঃ মুক্ত বাতাসে, নড়াচড়ায়, শীতল স্থানে, শীতল দ্রব্য পানাহারে, ব্যাথাযুক্ত পাশের্^ শয়নে, ধীরে ধীরে অঙ্গ সঞ্চালনে।

অনুপূরক ঔষধসমূহঃ লাইকো, সাইলিসিয়া, আর্জেন্ট নাইট, সালফার, ক্যামোমিলা।

পরবর্তী ঔষধঃ সিপিয়া, সালফার, কেলি মিউর।

ক্রিয়ানাশক ঔষধঃ কফিয়া, ক্যামোমিলা, নাক্স।

মেয়াদঃ ৪০ দিন।

শক্তিঃ ৩ থেকে ২০০ এবং তদুর্ধ শক্তি।

About The Author

DR. MOHAMMAD SHARIFUL ISLAM

নামঃ- ডা. মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম হোমিও হল সংক্ষিপ্ত নামঃ এস এই হোমিও হল

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *