Breaking News

দন্তরোগের হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

দন্তরোগ বা দাাঁতের পীড়া কি ?
দাঁত মানুষের অমূল্য সম্পদ।দাঁতের সাহায্যে মানুষ খাদ্যবস্তু চর্বন করে থাকে।চর্বন ক্রিয়ার সময় মুখ হতে লালা রস বের হয়ে খাদ্যদ্রব্যের সাথে মিশে পরিপাক ক্রিয়ায় সাহায্য করে।দাঁত সৌন্দর্যের অঙ্গ/দন্তহীন ব্যক্তিরা স্পষ্ট কথা বলতে পারে না এবং তাদের মুখের শ্রী নষ্ট হয়ে যায়। হজম কাজের সাহায্যের জন্য খাদ্যবস্তুকে টুকরা টুকরা করে গলধঃকরণ করাই দাঁতের কাজ। দাঁতের গঠন জনিত ত্রুটি,দাঁতের অযত্ন,আঘাত,দাঁতের পোকা,বেশি গরম,শীতল খাদ্য, মিষ্টি ও টক খাদ্য গ্রহণ এবং অপরিষ্কার জনিত জীবাণু দূষণে দাঁতের গোড়া ফুলে যায় এবং ব্যথা হয়।

দাঁতের রোগসমুহঃ
* মাড়ি দিয়ে রক্ত পড়া।
* ঠান্ডা পানি খেলে শিরশির করা।
* মুখে দূর্গন্ধ হওয়া।
* অকালে দাঁত পড়া।
* দাঁতের ক্ষয় হওয়া।
* আক্কেল দাঁত উঠা।
* মাড়ি ফুলে যাওয়া।
* দাতেঁর সামনে ও পেছনে দাগ পড়া।
* দাঁতে পাথর হওয়া।

দন্তক্ষয় রোগ/পোকা খাওয়া : আহারের পর খাদ্যদ্রব্যের কিছু দাঁতের ফাঁকে অথবা আশেপাশে লেগে থাকতে পারে।সেখানে ব্যাকটেরিয়া নামক এক জাতীয় জীবাণু অম্লের উৎপত্তি করে।এ অম্ল দাঁতে সামান্য গর্তের সৃষ্টি করে।প্রতিষেধক ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে এ গর্ত দিনে দিনে বড় হতে থাকে।

  হোমিওপ্যাথিক চিকিৎসা

একোনাইট ন্যাপঃ-ঠান্ডা লাগিয়া হঠাৎ দাঁতে কনকনানি ব্যাথা।মাড়ি ফোলা,ছটফটানি অস্থিরতায় একনাইট প্রযোজ্য।

মার্ক সলঃ-দাঁতের মারি ফোলা,ব্যাথা,মাড়িতে ঘা,রক্ত পড়ে,লালা ঝরে,মুখে দূর্গন্ধ,পোকা ধরা দাঁত ঠান্ডা পানিতে যন্ত্রনা বাড়ে,দাঁতের যন্ত্রনা রাতে বিছানার গরমে বৃদ্ধিতে এটি অব্যা্র্থ।দাঁতের আগা ক্ষয় হতে থাকলে এটি উপকারি।

এন্টিম ক্রুডঃ-পোকায় ধরা দাঁতের গর্তে  খাবার আটকালে বা ঠান্ডা পানি দাতে লাগলে যন্ত্রনা বাড়ে।সেই জন্য রোগী হা করিয়া গলার ভিতর পানি ঢেলে পান করে।জিহ্বায় সাদা প্রলেপ যুক্ত রোগীর জন্য এই ঔষধ অধিক উপকারি।

কফিয়াঃ-দাঁত বেদনায় চমৎকার ঔষধ,ঠান্ডা পানি মুখে রাখলে ব্যাথা কমে।মুখের ভেতর পানি গরম হলে যন্ত্রনা বাড়ে।তাই রোগী বারবার ঠান্ডা পানি মুখে দেয়।এই লক্ষনে কফিয়া অব্যার্থ।

হেকলা লাভাঃ-মাড়ী ফোলা,শূলনী ব্যাথা,মাড়িতে ক্ষত,পোকায়ধরা দাঁত,দাঁত আস্তে আস্তে ভাঙ্গিয়া যায়।দাঁত তোলার পর যন্ত্রনার উপসর্গে দাঁতের নালীর ঘায়ে এটি অব্যার্থ।

এসিড ফ্লোরঃ-পায়োরিয়া রোগের শ্রেষ্ঠ ঔষধ।দাঁতের মাড়িতে ঘা,পুঁজ পড়ে,মুখ দিয়া পঁচা দুর্গন্ধ বের হয়।ঠান্ডা পানি মুখে নিলে আরাম লাগে।গরমে যন্ত্রনা বৃদ্ধিতে এটি অমোঘ।

কার্ডুয়াস মেরীঃ- এটি পায়োরিয়া রোগের শ্রেষ্ঠ ঔষধ।মাড়ি ফুলে,মাড়ি থেকে রক্ত পড়ে,দাতের গোড়া আলগা হইয়া যায়।মাড়ি থেকে দুর্গন্ধ পুঁজ বাহির হয়।

ক্যামোমিলাঃ-খিটখিটে বদমেজাজী রাগী।সামান্য কারনেই গালমন্দ করে।ঝগরাঝাটি লাগিয়ে বসে।এই ধরনের ধাতুর রোগীদের  দাঁতের ব্যাথায় ক্যামোমিলা অব্যার্থ।

ক্রিয়জোটঃ-শিশুদের দাঁত উঠিবার পরেই দাত গুলো আস্তে আস্তে কালো হতে থাকে।ভেঙ্গে পড়ে,পোকায় ধরে,মাড়ি ফুলে রক্ত পড়ে,পোকায় ধরা দাঁতে ভীষন ব্যাথা প্রভৃতি লক্ষনে ইহা উপকারী।

ষ্ট্যাফিসেগ্রিয়াঃ-ক্রোধ স্বভাব অপমানিত হলেও আত্মসন্মানের ভয়ে ঝগড়া করে না।সর্বদা কাম ভাবের চিন্তা । শীত কাতর এই ধাতুর রোগীদের দাঁতে পোকা,মাড়ী ফোলা,রক্ত পড়া ইত্যাদি লক্ষনে এটি উপকারি।

ম্যাগনেশিয়া কার্বঃ-গর্ভবতি মহিলাদের দাঁত ব্যাথা,রাতে বৃদ্ধি।পায়চারি করিলে বা ঠান্ডা পানিতে উপশমে ইহা উপকারী।

র‌্যাটানহিয়াঃ-গর্ভাবস্থার প্রথম দিকে ভয়ানক দাঁতে ব্যাথা।ব্যাথা শুইলে বাড়ে,চলিয়া বেড়াইলে ব্যাথা কমলে এটি উপকারী।দাঁতের মাড়িতে রক্ত পড়ায়ও এটি ভাল ঔষধ।

কার্বোভেজঃ-দাঁত মাজতে বা কুলি করতে রক্ত পড়ে।মাড়ি থেকে দাতের গোড়া বের হয়ে যায়,ব্যাথা করে।

এসিড নাইটঃ-ঠোঁটের কোনায় ঘা,দাঁতের মাড়িতে ক্ষত,রক্ত পড়ে মুখ থেকে পঁচা দুর্গন্ধ বের হয়।লালা পড়ে,প্রস্রাবে কটু দর্গন্ধ ইত্যাদি লক্ষনে এটি উপকারি।

ট্রিলিয়ামঃ-দাঁত তোলার পর রক্ত পড়তে থাকলে এর Q তুলা দিয়ে দাঁতের গর্তে লাগালে রক্ত পড়া বন্ধ হয়।

প্লান্টেগোঃ-সব রকমের দাঁতের ব্যাথায় এটি কর্যকরি ভাবে ব্যাবহৃত হয়ে আসছে।

মেজরিয়মঃ-দাঁতের গোড়া ক্ষয় হতে থাকলে এটি উপকারি।

টিউবার কুলিনামঃ-সামনের বড় দুই দাঁতের ফাঁকে কালো দাগ পড়ে ছিদ্র হতে থাকলে এটিতে উপকার হয়।
বাইওকেমিক চিকিৎসা

সাইলেসিয়াঃ-পায়োরিয়ার উত্তম ঔষধ।দাঁতের মাঢ়ীতে ঘা রক্ত মিশ্রিত দুর্গন্ধ,পুঁজ পড়লে,ঠান্ডা পানি মুখে দিলে সিন সিন করে ধরে।

ক্যালকেরিয়া ফ্লোরঃ-দাঁতের মাড়ী ফোলা,অল্প নড়া দাঁতের ঘিনঘিন ব্যাথা,মাড়ীতে ঘা,নড়া দাঁতে খাদ্য দ্রব্য লাগিলে ব্যথা বাড়ে।পায়োরিয়ায় ক্যালকেরিয়া ফ্লোরে আরোগ্য হয়।

ক্যালকেরিয়া ফসঃ-রক্ত শুন্য দুর্বল রোগীদের দাতে কনকনে ব্যাথা ,ঠান্ডায় বৃদ্ধি,রাতে বৃদ্ধিতে ইহা উপকারি।শিশুদের দুধ দাঁত পড়ে উঠতে দেরি হলে এটিতে দাঁত উঠে।

ম্যাগনেশিয়া ফসঃ-সর্বপ্রকার দাঁত ব্যাথা,গরম কিছুতে উপশমে ইহা অব্যার্থ।

নেট্রাম সালফঃ-দাঁত ব্যাথায় গরম খাবার মুখে দিলে বাড়ে। ঠান্ডা পানিতে উপশমে ইহা উপকারি।
দন্তরোগীর করণীয়ঃ
সকাল-বিকাল দাঁত পরিষ্কার করা উচিত।খাওয়ার পর বেশি করে কুলি করা উচিত।যাতে করে দাঁতের ফাঁকে খাদ্য থাকতে না পারে।অধিক পরিমানে মিষ্টি দ্রব্য আহার দাঁতের জন্য ক্ষতিকর।

About The Author

DR. MOHAMMAD SHARIFUL ISLAM

নামঃ- ডা. মোহাম্মদ শরীফুল ইসলাম হোমিও হল সংক্ষিপ্ত নামঃ এস এই হোমিও হল

Related posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *